Wednesday, October 10, 2012

রাগিব হাসানের আলোর ইস্কুল

সহ-ব্লগার রাগিব হাসান সর্ম্পকে নতুন করে তেমন কিছু বলার নেই। বাংলাদেশের গৌরব ড. রাগিব হাসান পেশায় একজন কম্পিউটার বিজ্ঞানী। তিনি ইউনিভার্সিটি অব আলাবামা অ্যাট বার্মিংহামের কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগে সহকারী অধ্যাপক পদে কর্মরত। তাঁর গবেষণার বিষয় কম্পিউটার নিরাপত্তা ও ক্লাউড কম্পিউটিং। ২০০৬ সাল থেকে তিনি বাংলা উইকিপিডিয়াতে কাজ করছেন।

সম্প্রতি তারই উদ্যোগে আন্তর্জালে ছড়িয়ে পড়েছে বাংলা ভাষায় জ্ঞান-বিজ্ঞানের আলো। বিজ্ঞানের শিক্ষার্থী মাত্রই জানেন, উচ্চতর জ্ঞান-বিজ্ঞানের নানা শাখায় বাংলা ভাষায় বইপত্রের বেশ অভাব, কিছু ক্ষেত্রে প্রায়ই তা ইংরেজি বইয়ের হুবহু অনুবাদ। খটমটে অনুবাদের এসব বই শিক্ষার্থীর জ্ঞানতৃষ্ণা মেটানোর বদলে অনেক সময়ই বিজ্ঞানকে করে তোলো আরো ভীতিকর। আবার আন্তর্জালে প্রকাশিত বিজ্ঞানের নানা তথ্য ও জার্নাল অধিকাংশই বিদেশি ভাষায়। বিভিন্ন কঠিন অভিধা এবং জটিল তথ্য-উপাত্তে সেসব প্রায়শই শিক্ষার্থী-গবেষকদের কাছে দুর্বোধ্য ঠেকে। অনেক ক্ষেত্রে নথিপত্র, তথ্য-উপাত্ত আন্তর্জাল থেকে সংগ্রহ করতে আগ্রহীদের ক্রেডিট কার্ডে গুনতে হয় মোটা অঙ্কের অর্থ।
শিক্ষার এই বিপত্তি এড়াতে সম্প্রতি রাগিব হাসানের নেতৃত্বে সম্পূর্ণ স্বেচ্ছাশ্রমে এগিয়ে এসেছেন একঝাঁক পেশাদার শিক্ষক ও গবেষক। তাঁরা শিক্ষক ডটকম নামে একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আন্তর্জালে চালু করেছেন জ্ঞান-বিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখায় নানা প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ। আলোর এই ইস্কুলে এসব প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে পুরোপুরি বিনা মূল্যে এবং বাংলা ভাষায়। এতে জ্ঞানের আলো ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বের নানা প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা বাংলা ভাষাভাষীদের মধ্যে। একই সঙ্গে বাড়ছে অমর একুশের গৌরবময় মাতৃভাষা বাংলা ভাষার প্রসারও।

শিক্ষক ডটকম বাংলা ভাষায় মুক্ত জ্ঞানের প্রকাশ ও বিকাশের জন্য এমনই একটি অভিনব আন্তর্জালভিত্তিক মুক্তমঞ্চ। এ ধরনের উদ্যোগ বাংলা ভাষায় এটিই প্রথম। গত আগস্টেই ওয়েবসাইটটি চালু হওয়ার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, টুইটার ও বিভিন্ন ব্লগ সাইটে এ নিয়ে বেশ সাড়া লক্ষ্য করা যায়। গণমাধ্যমে এ নিয়ে প্রকাশিত হয়েছে বিশেষ প্রতিবেদন।


শিক্ষক ডটকম ঘুরে দেখা যাবে, বিজ্ঞানের প্রতিটি বিষয়ে দেওয়া কোর্সের লেকচারের নিচেই আগ্রহীদের প্রশ্ন ও মন্তব্য করার সুয়োগ রয়েছে। এ ছাড়া সংশ্লিষ্ট বিষয়ের অভিজ্ঞ গবেষক ও শিক্ষকরা ভিডিও ক্লিপিংয়ের মাধ্যমে সহজবোধ্যভাবে বাংলায় দিচ্ছেন ক্লাস লেকচার। স্বয়ংক্রিয়ভাবে ই-মেইলেও লেকচার পাওয়ার সুযোগ রয়েছে। সে জন্য আগ্রহীদের সংশ্লিষ্ট লেকচার নোট পেতে সাইটটিতে গিয়ে নিবন্ধিত হতে হবে। জ্ঞানের আলো ছড়িয়ে দেওয়ার ব্রত নিয়ে বিভিন্ন বিষয়ে ডজনখানেক শিক্ষক ও গবেষক স্বেচ্ছাশ্রমে এই মহান উদ্যোগের সঙ্গে সার্বক্ষণিকভাবে যুক্ত হয়েছেন।


তারা বাংলাদেশ, যুক্তরাষ্ট্র, নেদারল্যান্ডস, জার্মানি ও কানাডায় সংশ্লিষ্ট বিষয়ে খ্যাতনামা বিশ্ববিদ্যালয় বা গবেষণা সংস্থায় নিজ নিজ মেধার স্বাক্ষর রেখে চলেছেন। সাইটটিতে প্রতিটি কোর্সের সঙ্গে রয়েছে কোর্সটির শিক্ষক পরিচিতি, তাঁর নিজস্ব ওয়েবসাইট বা ব্লগ ঠিকানা। একেকটি কোর্স থেকে শিক্ষার্থীরা যাতে আন্তর্জাতিক মানের প্রশিক্ষণ পান, প্রতিটি কোর্সেই যাতে জ্ঞান-বিজ্ঞানের হালনাগাদ তথ্য থাকে এবং কোর্স শেষে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা যাতে প্রত্যেকেই হয়ে ওঠেন সমৃদ্ধ, এ জন্য প্রশিক্ষকরা সচেষ্ট।

রাগিব হাসান তার প্রতিষ্ঠিত শিক্ষক ডটকম প্রসঙ্গে এই লেখককে বলেন, এটি বাংলা ভাষায় জ্ঞান-বিজ্ঞানের আলো সর্বত্র ছড়িয়ে দেওয়ার একটি অবাণিজ্যিক উদ্যোগ। এই সাইটে বাংলা ভাষায় নানা বিষয়ে অনলাইন কোর্স দেওয়া হচ্ছে, যা সবার জন্য উন্মুক্ত। যে কেউ সম্পূর্ণ বিনা মূল্যে সহজেই এখানে নানা বিষয় জানতে পারবেন। তিনি জানান, সাইটটিতে কেউ কোনো কোর্স পড়াতে চাইলে নির্দিষ্ট তথ্যগুলো [ragibhasan@gmail.com] ঠিকানায় ই-মেইল করতে পারেন।

প্রসঙ্গত, বাংলা ভাষায় জ্ঞানের বিকাশের জন্য রাগিব হাসান কিছুদিন আগে কম্পিউটার বিজ্ঞান শেখানোর জন্য আরেকটি ওয়েবসাইট যন্ত্রগণক ডটকম [http://jontrogonok.com/] প্রতিষ্ঠা করেন। এরই যোগসূত্রে শিক্ষক ডটকম [http://www.shikkhok.com/] এর অভিযাত্রা।

এই সময়ে মুক্তজ্ঞানের এই বিদ্যালয়ে যে সব বিষয়ে কোর্স দেওয়া হচ্ছে, তা হলো: জ্যোতির্বিজ্ঞান ১০১ [খান মুহাম্মদ], কেমিকৌশল পরিচিতি [ফারুক হাসান], ক্লাউড কম্পিউটিং [রাগিব হাসান], তড়িৎকৌশল পরিচিতি [ডেভিড বিশ্বাস], ফাইন্যান্স ১০১ – অর্থবিজ্ঞান পরিচিতি [আলী হায়দার খান], জিওগ্রাফিক ইনফর্মেশন সিস্টেম পরিচিতি [বায়েস আহমেদ], পরিবেশ এবং পরিবেশ ব্যবস্থাপনা পরিচিতি [ইখতেখারুল ইসলাম], বায়োইনফরমেটিক্স পরিচিতি – বায়ো-বায়ো-১ রিসার্চ ফাউন্ডেশন

ক্যালকুলাসের অ-আ-ক-খ [চমক হাসান], সি প্রোগ্রামিং [মারুফ মনিরুজ্জামান], সি++ প্রোগ্রামিং [ইশতিয়াক রউফ], পরিবেশ বিজ্ঞান পরিচিতি [মোস্তফা কামাল পলাশ], নিউরোসায়েন্স পরিচিতি [মামুন রশিদ], আইপি টেলিফোনী [মশিউর রহমান]…

শিক্ষক ডটকম এর এসব উদ্যোগ বিশ্বের নানা প্রান্তে নানা গুনিজনের কাছে কদর পাচ্ছে, এটি বলা খুব বেশী বাহুল্য নয়। ভারতের আসামের বিশিষ্ট গবেষক ও লেখক সুশান্ত করের একটি ফেবু মন্তব্য এ প্রসঙ্গে উদ্ধৃত করা যাক। তিনি বলছেন:
ভালো মানে, অত্যন্ত ভালো সাইট। আর সবেতেই বাংলাদেশের বন্ধুরা আমাদের থেকে এগিয়ে আছেন। আপাতত দেখছি বিজ্ঞানের চর্চাই বেশি। তাই বা মন্দ কী? বাংলা ভাষাতে বিজ্ঞান চর্চা হয় না বলে যে কুসংস্কার একেই তাঁরা সবার আগে ধাক্কা দিয়েছেন। আমারতো ভবিষ্যত নিয়ে ভরসা বেড়ে গেল। আমরা পূর্বোত্তর ভারতের লোকেরা কবে কী করছি? এখনো তো সাহিত্যই ভালো করে নেটে করে উঠতে পারলাম না। শিখতে আমাদের প্রবল অনীহা!

তবে সম্প্রতি ধর্মীয় উন্মাদনা সৃষ্টিকারী একটি চলচ্চিত্র প্রদর্শনে বাংলাদেশেও মৌলবাদী সহিংসতা ছড়িয়ে পড়তে পারে, এমন অজুহাতে এদেশে ইউটিউবসহ গুগলের নানা সার্ভিস ব্লক করা হয়েছে। গুগল বাংলাদেশ সরকারের কাছে নতি স্বীকার না করা পর্যন্ত এসব বন্ধ করে রাখা হবে বলে খবরে প্রকাশ। এতে এদেশের শিক্ষার্থীরা শিক্ষক ডটকম এর ওয়েব সাইট থেকে ভিডিও ক্লিপিং থেকে লেকচার-নোট নিতে পারছেন না। এ নিয়ে ফেবুতে অনেক সরাসরি খেদ ঝেড়েছেন; অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। মুক্তজ্ঞান ও বিনোদনের এই আন্তর্জালের প্রতিবন্ধকতা যত দ্রুত সরকার দূর করবেন, ততোই তা কল্যাণ বয়ে নিয়ে আসবে বলে বোধ হচ্ছে। …