Monday, August 24, 2015

‘হামজা ব্রিগেড’ রহস্য অনুৎঘাটিত

বিপ্লব রহমান, ঢাকা: ‘শহীদ হামজা ব্রিগেড’ নামক জঙ্গি গ্রুপ গঠনের উদ্দেশ্য কী, তা গত নয় মাসেও জানতে পারেনি তদন্তকারীরা। এই গ্রুপটির নেপথ্য শক্তি কারা, কেন গ্রুপটির নাম ‘শহীদ হামজা বিগ্রেড’, এর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য কি, তা-ও এখনো অজানা। তদন্ত কর্মকর্তারা বলছেন, জঙ্গি গ্রুপটির রহস্য উদঘাটনের তদন্ত এখনো অব্যহত আছে।

র‍্যাব-৭ চট্টগ্রামের অধিনায়ক লে. কর্নেল মিফতাহ উদ্দিন আহমেদ নিউজনেক্সটবিডি ডটকম’কে বলেন, ‘শহীদ হামজা ব্রিগেড গঠনের উদ্দেশ্য এখনো আমরা জানতে পারিনি। কোনো আন্তর্জাতিক জেহাদী জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে তাদের যোগসাজস রয়েছে কি না, তা-ও জানা যায়নি। পুরো বিষয় এখনো খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘তবে বড় ধরনের কোনো নাশকতার পরিকল্পনা নিয়ে তারা এগুচ্ছিল, এ সর্ম্পকে আমরা নিশ্চিত। কিন্তু নাশকতা ঘটানোর আগেই অস্ত্র-শস্ত্রসহ তাদের একটি বড় অংশকে আমরা ধরেছি। এ কারণে তারা আর নাশকতা ঘটাতে পারেনি।’

লে. কর্নেল মিফতাহ আরো বলেন, ‘রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর নির্যাতন হচ্ছে, এই সেন্টিমেন্টকে কাজে লাগিয়ে কর্মীদের উজ্জীবিত করতো হামজা ব্রিগেড। আর চট্টগ্রামের মানুষ যেহেতু ধর্মপরায়ন তাই তারা সংগঠিত হওয়ার জন্য বেছে নেয় এই অঞ্চল। পাহাড়ি এলাকা বলে প্রশিক্ষণের জন্যও তারা ঘাঁটি গাড়ে চট্টগ্রামে।’

জঙ্গি সংগঠনটিকে অর্থায়নের অভিযোগে বুধবারই ঢাকায় গ্রেফতার হন সুপ্রিম কোর্টের তিন আইনজীবী। র‍্যাবের অভিযোগ, বিভিন্ন সময় তারা নগদ আট লাখ টাকা হামজা ব্রিগেডকে দেন।

গ্রেফতারকৃত ব্যারিস্টার শাকিলা ফারজানা বিএনপি পন্থী আইনজীবীদের সংগঠন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের যুগ্ম সম্পাদক। তার বাবা বিএনপি সরকারের সময়কার একজন সংসদ সদস্য ছিলেন। অপর দুজন আইনজীবী হাসানুজ্জামান লিটন এবং মাহফুজ চৌধুরি বাপন তার সহকর্মী। আইনজীবীরা জানিয়েছেন, ব্যারিস্টার শাকিলা হেফাজতে ইসলামের মামলাগুলো লড়তেন।

র‍্যাব জানিয়েছে, ২০১৩ সালের নভেম্বরে গঠিত হওয়া হামজা বিগ্রেডের বিভিন্ন জনের নামে পাঁচটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট পাওয়া গেছে। গত এপ্রিলে অস্ত্র-শস্ত্রসহ জঙ্গি সংগঠনের মোট ২৪ জনকে আটক করে র‍্যাব।

এর আগে ১৯ ফেব্রুয়ারি হাটহাজারী সদরের মাদরাসাতুল আবু বকরে অভিযান চালিয়ে কম্পিউটার, ল্যাপটপ, জেহাদী বইসহ জঙ্গি সন্দেহে ১২ জনকে আটক করে র‍্যাব। তাদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ২১ ফেব্রুয়ারি বাঁশখালীর লটমণি পাহাড়ে অভিযান চালিয়ে অস্ত্র-গুলিসহ গ্রেফতার করা হয় পাঁচ জনকে।

২৮ ফেব্রুয়ারি হালিশহর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় এক বাসায় অভিযান চালিয়ে বোমা তৈরির বিপুল সাজ-সরঞ্জাম, ৭৬টি হাতবোমাসহ গ্রেফতার করা হয় আরো তিনজনকে।

গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে র‍্যাব জানতে পারে, ‘শহীদ হামজা ব্রিগেড’ নামে নতুন জঙ্গি সংগঠনের কথা।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/বিআর/এনআই

 - See more at: http://bangla.newsnextbd.com/article183603.nnbd/#sthash.klgRxgoV.dpuf